‘তৃণমূলের জেলা সভাপতির যা যোগ্যতা নরেন্দ্র মোদির সেটাও নেই – মমতা ব্যানার্জী

0
135

প্রান্তিক সংবাদ ডেস্ক: নির্বাচন নিয়ে উৎসবমূখর ভারত। ইতিমধ্যে দেশটির বেশ কয়েকটি প্রদেশের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে।সাত পর্বের নির্বাচনে চতুর্থ ধাপের প্রস্তুতি চলছে রাজনৈতিক দলগুলোতে।

ইতিমধ্যে অভিযোগ-পাল্টা অভিযোগ আর কাদা ছোঁড়াছুড়িতে মগ্ন প্রার্থীরা। হেভিওয়েট প্রার্থীরাও থেমে নেই। খোদ পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল সভানেত্রী একহাত নিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে।

এবার নরেন্দ্র মোদির দক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতা বলেন, ‘তৃণমূলের জেলা সভাপতির যা যোগ্যতা নরেন্দ্র মোদির সেটাও নেই।’ এটা বলেই থেমে থাকেননি তিনি। মমতা ব্যানার্জি আরও বলেন, আমার দলের ব্লক সভাপতির যে যোগ্যতা, তাও নেই বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতির।’

এবার বিজেপি সরকারের পতন নিশ্চিত মন্তব্য করে প্রশ্ন ছুঁড়েন মমতা, ‘বিজেপির এসব নেতারা কোনোদিন রাজনীতি করেছে?’ পশ্চিমবঙ্গের হাওড়ার আন্দুলে এক জনসভায় মমতা দাবি করেন, ‘গত নির্বাচনে বাংলায় দুটি আসন পেয়েছিল বিজেপি। এবার গোল্লা পাবে তারা। সব আসনই তৃণমূল পাবে।’

এর জন্য বিজেপি সরকারের ব্যর্থতাকে দায়ি করেন তিনি। এ সময় অযোধ্যায় বিজেপির রামমন্দির নির্মাণ না করতে পারা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন মমত। তৃণমূলনেত্রী বলেন, ‘ভোটের আগে অযোধ্যায় গিয়ে রামমন্দির নির্মাণের কথা বলছে মোদি। অথচ গত পাঁচ বছরে হাতের আঙুলের মাপের একটা মন্দিরও বানাতে পারেননি।’

এসময় মোদি ও শাহ প্রশাসনকে অপদার্থ বলে কটাক্ষ করেন মমতা। এরপরই বিজেপির বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িক প্রচারের অভিযোগ আনেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘একজন হিন্দু বিপদে পড়লে আমার যেমন অনুভূতি হবে, একজন মুসলমান বিপদে পড়লেও আমার তেমনই কষ্ট লাগবে। আমি যতক্ষণ চেয়ারে আছি, আমি সবার জন্য।’

বিজেপি সরকার ভেদাভেদের রাজনীতি করেন বলে অভিযোগ মমতার।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here