ঢাকা থেকে রোহিঙ্গা পাচারকারী আটক

0
113

প্রান্তিক সংবাদ ডেস্ক: গত ১৭ জুলাই বুধবার রাত ৯:০০ টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১০ এর উপ-অধিনায়ক মেজর মোঃ আশরাফুল হক, পিএসসি, জি এর নেতৃত্বে একটি চৌকস দল বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে ঢাকা জেলার দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ থানাধীন হাসনাবাদ বড় মসজিদ সংলগ্ন পাগলা হোসেনের বাড়ী হতে বাস্তুচ্যুত মিয়ানমার নাগরিক (রোহিঙ্গা) পাচারকারী চক্রের ২ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়।
পরবর্তীতে তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে রাজধানীসহ এর আশপাশ এলাকা হতে অদ্যাবধি আরো ১১ সদস্যকে গ্রেফতার/আটক করা হয়। এর মধ্যে ১। মুশফেকা (১৯), ২। নুর বেগম (৪৮) ও ৩। শান্তনা (১৩) নামক ০৩ জন অভিবাসন প্রত্যাশী। তন্মধ্যে মুশফেকা ও নুর বেগম বাস্তুচ্যুত মিয়ানমার নাগরিক (রোহিঙ্গা)। মানব পাচারকারী এ চক্রটি দীর্ঘদিন যাবৎ রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্প হতে বিভিন্নভাবে প্রলোভন দেখিয়ে কৌশলে অসহায় বাস্তুচ্যুত মিয়ানমার নাগরিক (রোহিঙ্গা) শরণার্থীদের সহ স্থানীয় নাগরিকদেরও বের করে এনে মালয়েশিয়া এবং মধ্যপ্রাচ্যসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে পাঁচার করে আসছে। আসামীদের নাম ১। বাবুল (৪০), পিতা-নাজিম মিয়া, সাং-আছরা, থানা-বরুরা, জেলা-কুমিল্লা, ২। মোঃ জাহাঙ্গীর আলম (৫২), পিতা-মৃত হাবিবর মোল্লা, সাং-দোপাড়া, থানা-শিবগঞ্জ, জেলা-বগুড়া, ৩। মোঃ মানিক (৪৫), পিতা-মুদ হাসান আহম্মদ, সাং-হাসনাবাদ, থানা-মনারগঞ্জ, জেলা-কুমিল্লা, ৪। রানা (৩৪), পিতা-মিন্টু বিশ^াস, সাং-বিশ^াসবাড়ী (মনোহরপুর), থানা-কালিগঞ্জ, জেলা-ঝিনাইদহ, ৫। হুমায়ুন কবির (৪৩), ৬। আল-মামুন (৩৫), উভয় পিতা-আব্দুল খালেক হাওলাদার, সাং-পূর্বরাণীপুর, থানা-বেতাগী, জেলা-বরগুনা, ৭। কাজী মাহফুজুর রহমান মাসুদ(৪০), পিতা- মৃত কাজী আব্দুল মান্নান, সাং- আকসা, থানা- নড়িয়া, জেলা- শরিয়তপুর, বর্তমানে বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা, ৮। মোঃ ফারুক মিয়া(২৫), পিতা- সুলতান মিয়া, সাং- ফইসারা, থানা- কচুয়া, জেলা- চাঁদপুর, বর্তমানে রায়ের বাগ, কদমতলী, ঢাকা, ৯। গৌরাঙ্গ সরকার(২৫), পিতা-সুদাংসু সরকার, সাং-কুলাটি, থানা-ডমুরিয়া, জেলা- খুলনা, বর্তমানে সায়দাবাদ, যাত্রাবাড়ী, ঢাকা, ১০। কাকলী (৩৫), স্বামী- বাবুল (৪০), সাং-আছরা, থানা-বরুরা, জেলা-কুমিল্লা বলে জানা যায়। এ সময় তাদের নিকট হতে বিপুল পরিমান পাসপোর্ট, মোবাইল, নগদ টাকা, চেকবই উদ্ধারপূর্বক জব্দ করা হয়। প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায় তারা দীর্ঘদিন ধরে মানব পাচারের সাথে যুক্ত। ধৃত আসামীগণ একটি সংঘবদ্ধ মানব পাচারকারী চক্র বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে প্রতীয়মান হয়।

আসামীদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় একটি মানব পাচার মামলা রুজুর বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here